Top 15 Freelancing Skill For Freelancer in 2021

২০২১ সালে চাহিদা সম্পন্ন সেরা ১৫ টি ফ্রিল্যান্সিং স্কিল

আর যাই বলুন অন্ততঃ ফ্রিলান্সিং জগতে কাজ বা স্কিল জানা যদি না থাকে তাহলে টিকে থাকা কোন ভাবেই সম্ভব নয়। ফ্রিলান্সিং দুনিয়ায় স্কিল এর বিকল্প কোন কিছুই নাই। 

freelancing-skill-development-2021

পেশাগত চাকরির সাথে পাল্লা দিয়ে  প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে Freelance Job এর চাহিদা। সারা বিশ্বের মত বাংলাদেশেও এর চাহিদা দিন দিন বাড়ছে। তরুনদের  মধ্যে এই পেশার উপর অনেক বেশি আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। Freelancing Geek এর এই পোস্টে তুলে ধরবো 

২০২১ সালে চাহিদা সম্পন্ন  সেরা ১৫ টি ফ্রিল্যান্সিং স্কিল  যা আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ারে প্রভাব রাখবে।

আর অপেক্ষা কেন?  তো চলুন শুরু করা যাক—

    ১. AWS DEVELOPMENT:

    বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় Cloud Service Provider হলো  Amazon Web Services (AWS) । হালের সকল জনপ্রিয় সকল ওয়েব সাইট এদের থেকে সেবা নিয়ে থাকে। এরা সকল ধরনের সার্ভার সাপোর্ট দিয়ে থাকে। বর্তমান সময়ে প্রায় ছোট, বড় সকল ধরনের কোম্পানীগুলোর Cloud  সার্ভিসের জন্য পছন্দের তালিকায় রয়েছে AWS. 

    AWS সম্পর্কে অভিজ্ঞতা কম থাকায় এই সেক্টরে ফ্রিল্যান্সার দের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। পাশাপাশি কম্পিটিটর অন্য সেকশন তুলনায় অনেকটাই কম। মার্কেটপ্লেস গুলো তে প্রতিনিয়ত এই কাজের উপর ক্লায়েন্ট পাওয়া যায়।

    ২. MOBILE APP DEVELOPMENT:

    হাল জামানায় একটি মুহুর্তও কল্পনা করা যায় না Smart Phone  ছাড়া । আমাদের জীবনের প্রত্যেক ক্ষেত্রে আমাদের এখন সব সময়ের সঙ্গী আমাদের হাতের স্মার্টফোনটি। আর আমাদের স্মার্টফোন এক্সপেরিয়েন্সর জন্য মোবাইল এপসের ভুমিকা অপরিসীম। বর্তমান সময়ে প্রত্যেক ছোট, বড় কম্পানী তাদের কাস্টমারদের ভালো এক্সপেরিয়েন্স দিতে তাদের কোম্পানীর জন্য একটি এপস তৈরী করছেন। এতে করে ভোক্তারা সহজেই সুবিধা নিতে পাচ্ছেন। মার্কেটপ্লেসে Mobile apps Development এর উপর প্রচুর কাজ প্রতিনিয়ত পাওয়া যায়। আপনি এই স্কিলটিকে নিজের আয়ত্তে নিয়ে আসলে আপনিও মার্কেটপ্লেস বা লোকাল মার্কেট থেকে প্রচুর কাজ পেতে পারেন।

    ৩. WEBSITE DESIGN AND DEVELOPMENT:

    বর্তমানে করোনা মহামারী আর বিশ্বায়নের কারণে বেড়ে উঠেছে অনলাইন ব্যবসা বা ই-কমার্সের চাহিদা। পুরো বিশ্বব্যাপি সব ধরনের ব্যবসায়ী তাদের ব্যবসাকে অনলাইনে নিয়ে আসতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে। এজন্য মার্কেটপ্লেস গুলোতে একজন দক্ষ ওয়েব ডিজাইনার ও ডেভেলপারের চাহিদা বেড়েই চলেছে। আপওয়ার্ক, ফাইভার, ফ্রিল্যান্সার ডট কম সহ অন্যান্য মার্কেটপ্লেসগুলোতে এবং লোকাল মার্কেটে এর চাহিদাও অনেক।

    freelancing-skill-development-2021-

    ৪. SEO - Search Engine Optimization:

    বর্তমান সময়ে Search Engine Optimization (SEO) এর চাহিদা মার্কেটপ্লেসগুলো তে  দিন দিন বাড়ছেই। অনলাইন নির্ভর ব্যবসা চালু হওয়ার কারণে সব ধরনের ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা কে সার্চ ইঞ্জিন গুলোতে তাদের ব্যবসা কে সামনে নিয়ে আসতে চান। আপনি এই স্কিলটি অর্জন করলে মার্কেটপ্লেসে প্রচুর কাজ পাবেন। 

    শুধুমাত্র ২০২১  সালেই নয়; সামনের বছরগুলোতে এর চাহিদা আরো দ্রুত হারে বাড়বে। এই স্কিল অর্জনে আপনি মোটামুটি জ্ঞান লাভ করেই আয় করতে পারবেন। আর দক্ষতা অর্জন করলে আপনি বিশ্বের নামী দামী কম্পানী গুলোর সাথেও কাজ করার সুযোগ পেতে পারেন।

    ৫. DATA ANALYSIS:

    যে কোন ব্যবসা শুরু করার জন্য, মার্কেটিং এবং ব্যবসার মান উন্নয়নের জন্য Data Analysis খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। Data analysis ব্যাপারটি অনেক পুরাতন হলেও কিছুদিন আগেও খুব বড় ধরনের কম্পানীগুলো ছাড়া কেউ এটা নিয়ে খুব একটা কাজ করতো না। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে এর ভুমিকা প্রচুর পরিমাণে বেড়ে দাড়িয়েছে। একজন ডেটা সাইন্টিস্ট বর্তমান সময়ে অনের চাহিদা সম্পন্ন। এই সেক্টরে কাজ পেতে গেলে দক্ষ হতে হবে। আর আপনি এই দক্ষতাটি অর্জন করলে আপনি ভালো কম্পনীর সাথে অনেক ভালো সেলারীতে কাজ করার সুযোগ পাবেন।

    ৬. SOCIAL MEDIA MARKETING - SMM:

    সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহার করি না, বর্তমান সময়ে এমন লোক খুবই কম আছে। সকল ব্যক্তি এবং ব্যবসায়ী প্রত্যেকেই চায় তাদের Social Media Profile এর জনপ্রিয়তা বাড়াতে। একজন দক্ষ সোস্যাল মিডিয়া মার্কেটার যা করতে সক্ষম। মার্কেটপ্লেসগুলোতে এখন এটি বেস্ট সেলিং সার্ভিস। তাই এই দক্ষতা অর্জন করলে আপনি সহজেই মার্কেটপ্লেস থেকে কাজ পেতে পারেন।

    ৭. ONLINE SECURITY AND ETHICAL HACKING:

    বর্তমান দুনিয়ায় ব্যবসার প্রসারে যেমন ওয়েবসাইট তৈরী করা গুরুত্বপূর্ণ, ঠিক তেমনি গুরুত্বপূর্ণ সেই ওয়েবসাইটের সিকিউরিটি নিশ্চিত করা। এছাড়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের হ্যাকারদের সাইবার এটাক থেকে ওয়েবসাইট পুনরুদ্ধার করতে Ethical Hacking অনেক প্রয়োজনীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। সঠিক দক্ষতা অর্জন করলে এখানে অনেক সম্ভাবনা আছে ভালো কম্পানীর সাথে কাজ করার।

    skill-development-2021-freelancing-geek-1

    ৮. ACCOUNTINGS AND BOOK KEEPING:

    আধুনিক বিশ্বের ৬০% এর বেশি ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসায়ীক হিসাবগুলো সঠিক ভাবে করতে পারেনা; বা, একজন ফুল টাইম এক্সপার্ট তার কোম্পানীতে রাখতে পারে না। তাই ট্যাক্স ক্যালকুলেট, পে রোল, বার্ষিক ফিন্যান্সিয়াল রিপোর্ট ইত্যাদি তৈরী করার জন্য ব্যবসায়ীরা কিছু সময়ের জন্য ফ্রিল্যান্স Accountant দের hire করে থাকে। এই স্কিলে দক্ষতা অর্জন করলে Marketplace থেকে কাজ পাবেন।

    ৯. WRITING:

    যারা ভার্সিটিতে লেখা পড়া করছেন তারা মোটামুটি ইংলিশে লেখালেখি করতে অভ্যস্ত। বর্তমান সময়ে website এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজের জন্য একজন Writer এর প্রয়োজন হয়। এখানে Blogs, Research, এবং CV writing গুরুত্বপূর্ণ। মার্কেটপ্লেসে এই কাজের ব্যাপক চাহিদা আছে। আপনি এই স্কিলটি আয়ত্তে এনে, মার্কেটপ্লেস থেকে প্রচুর কাজ করতে পারেন।

    ১০. PROOFREADING:

    বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা কর্মক্ষেত্রে লেখালেখির ক্ষেত্রে গ্রামার জনিত অনেক ভুল হয়, যার ফলে ব্যবসায়ীক কম্পানীগুলো কিছু অনিচ্ছাকৃত সমস্যার সম্মুখীন হয়। এতে করে তারা একজন Proofreading এক্সপার্ট কে খুজে থাকেন, এই সমস্যা এড়ানোর জন্য। দিন দিন এর চাহিদা বাড়ছে। মার্কেটপ্লেসেও প্রচুর চাহিদা আছে।

    ১১. VIDEO ANIMATION:

    যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ক্রমশ বেড়ে উঠছে Animation ইন্ডাস্ট্রি। পূর্বের তুলনায় বর্তমান সময়ে Animation এর অবস্থান অনেকটাই ভালো। বর্তমান সময়ে প্রায় বেশিরভাগ কম্পানীকে তাদের ব্যবসার প্রোমোশনের জন্য Video Animation ব্যবহার করতে দেখা যাচ্ছে। পাশাপাশি মার্কেটপ্লেসেও এর প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

    freelancing-skill-2021

    ১২. VECTOR ILLUSTRATION:

    বইয়ের কাভার, পোস্টার ডিজাইনে আগে শুধুমাত্র Vector Illustration ব্যবহার করা হতো, কিন্তু বর্তমান সময়ে এর চাহিদা ব্যাপক হারে বাড়ছে। ভিডিও গেমস, ক্যারেক্টার ডিজাইন, প্রেজেন্টেশন প্রভৃতি জায়গায় Vector Illustration এর নানাবিধ ব্যবহার রয়েছে। মার্কেটপ্লেসে এর চাহিদা অনুযায়ী যথেশষ্ট সাপ্লাইয়ার নেই। তাই এই স্কিলটি অর্জন করলে এটি নিয়ে সহজেই ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।

    ১৩. EXCEL MANAGEMENT:

    কর্পোরেট ওয়ার্ল্ড এ Excel এর ভুমিকা অপরিসীম। সব অফিসের নিত্য প্রয়োজনীয় কার্যক্রম অনেকটাই Excel নির্ভর। প্রায় ক্ষেত্রে excel expert এর অভাবে কম্পানীগুলো অনেক কাজ সম্পন্ন করতে পারে না। এসময় তারা, ফ্রিল্যান্সারদের Hire করতে চান। সকল মার্কেটপ্লেসে এই স্কিলের উপর পর্যাপ্ত পরিমাণ কাজ র‍য়েছে।

    ১৪. VIRTUAL ASSISTANT:

    এই সার্ভিস ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটে সব থেকে পুরাতন সার্ভিস গুলোর একটি। বিশ্বায়নের সাথে সাথে এর চাহিদা বেড়ে চলেছে। বর্তমান সময়ে ছোট বা মাঝারি কম্পানী মালিকরা একজন পার্মানেন্ট Assistant এর বদলে একজন Virtual Assistant রাখতে সাচ্ছন্দ বোধ করছে। এতে করে তারা তাদের প্রয়োজন মত Assistant পাচ্ছে এবং অর্থ সাশ্রয় করছেন। মার্কেটপ্লেসে এর চাহিদা অনেক।

    ১৫. SOCIAL MEDIA DESIGN

    সোস্যাল মিডিয়া বর্তমান সময়ে নিত্যব্যবহার্য একটি মাধ্যম। এখানে কাস্টমারদের নিজেদের আয়ত্তে রাখতে কম্পানীগুলো সর্বদাই আকর্ষনীয় কন্টেন্ট পোস্ট করতে চায়। যার মধ্যে আকর্ষণীয় ছবি অন্যতম। এছাড়া ফেইসবুক এডের জন্য আকর্ষনীয় ছবি ব্যবহার করা হয়। ব্রান্ডিং ভ্যালুতেও এর ভুমিকা অনেক। মার্কেটপ্লেসে এর চাহিদা প্রচুর।

    উপরে উল্লেখিত স্কিলগুলোকে আয়ত্তে এনে আপনি সহজেই আপনার ক্যারিয়ারকে সমৃদ্ধ করতে পারবেন। আশাকরি এই  বিষয়বস্তু গুলো আপনাদের ক্যারিয়ারে বিরাট ভুমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

    ধন্যবাদ আপনাকে Freelancing Geek এ আসার জন্য। কোন মন্তব্য বা পরামর্শ থাকলে কমেন্ট বক্স এ জানাতে ভুলবেন না। 

    1 মন্তব্যসমূহ

    একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

    নবীনতর পূর্বতন